শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০১ অপরাহ্ন

সামাজিক নিরাপত্তার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বেড়েছে ৩৮%

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম সোমবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৫৮ বার পঠিত

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে নতুন করে দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমেছেন অনেকে। সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় তাদের একটি উল্লেখযোগ্য অংশকে ভাতা দিচ্ছে সরকার। ফলে এ কর্মসূচির আওতায় ভাতাভোগীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সংখ্যা বেশ বেড়েছে। গত জুন পর্যন্ত এক বছরে ২০ লাখ ৩৯ হাজার অ্যাকাউন্ট বেড়ে প্রায় ৭৪ লাখে পৌঁছেছে। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় যা ৩৮ দশমিক ৩২ শতাংশ বেশি। সব মিলে নিম্ন আয়ের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের জন্য খোলা এ ধরনের অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ১৩ দশমিক ১৯ শতাংশ বেড়ে ২ কোটি ২১ লাখ হয়েছে।

সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে ব্যাংকিং সেবার আওতায় আনতে এবং সরকারি সহায়তার অর্থ স্বচ্ছতার সঙ্গে উপকারভোগীর হিসাবে পৌঁছে দিতে ২০১০ সাল থেকে ১০, ৫০ ও ১০০ টাকায় অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ তৈরি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এসব অ্যাকাউন্ট পরিচালনায় কোনো সার্ভিস চার্জ দিতে হয় না। নূ্যনতম জমার কোনো বাধ্যবাধকতা নেই।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ প্রতিবেদনের পরিসংখ্যান বলছে, ১০ টাকায় জুন পর্যন্ত সর্বোচ্চ এক কোটির বেশি অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে কৃষকের নামে। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় কৃষকের অ্যাকাউন্ট বেড়েছে মাত্র ২ দশমিক ৩২ শতাংশ। যারা সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় ভাতা পান তাদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৩ লাখ ৫৮ হাজার অ্যাকাউন্ট রয়েছে। অতিদরিদ্রদের নামে খোলা হয়েছে ২৭ লাখ ২৪ হাজার অ্যাকাউন্ট। মুক্তিযোদ্ধাদের নামে রয়েছে ২ লাখ ৫৪ হাজার এবং পথশিশু, তৈরি পোশাকসহ বিভিন্ন খাতের শ্রমিকসহ অন্যদের নামে রয়েছে ১৪ লাখ ৬৪ হাজার অ্যাকাউন্ট। কোনো চার্জ ছাড়াই কম টাকায় খোলা এসব অ্যাকাউন্ট থেকে নিজেদের মতো করে লেনদেন করতে পারেন তারা। পাশাপাশি সরকারের ভাতা বা অনুদানের অর্থ এসব অ্যাকাউন্টে জমা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019 Bankbimabd
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbankbimabd41