শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ০৫:৪৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ ::

ব্যাংক অব ইংল্যান্ড পাউন্ড ছাপিয়ে সরকারকে অর্থ জোগান দেবে

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম সোমবার, ২০ এপ্রিল, ২০২০
  • ২৮৪ বার পঠিত

দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) যা মানুষ ধারনাও করতে পারে নাই। মহামারির ক্ষতি এবং দেশগুলোর কঠোর অবস্থান দুটোর প্রভাবে বিশ্ব অর্থনীতি ধাক্কা খাচ্ছে। এত বেশি  প্রাণহানি ঠেকাতে লকডাউনের মতো নিয়ন্ত্রণমূলক পদক্ষেপ নেয়ার কারণে টালমাটাল হয়ে পড়েছে বিভিন্ন দেশের অর্থনীতি। অর্থনৈতিক এ মহাদুর্যোগের ক্ষয়ক্ষতি থেকে নিজ নিজ দেশের আর্থিক খাত, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সর্বোপরি নিজ জনগণকে সুরক্ষা দিতে বিভিন্ন দেশের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে নেয়া হয়েছে প্রণোদনামূলক নানা পদক্ষেপ। বেকারত্ব ও মন্দা এড়াতে প্রণোদনাসহ নানামুখী পদক্ষেপ নিতে হচ্ছে এসব দেশের সরকারকে।

এমন পরিস্থিতিতে সংকট মোকাবেলায় যুক্তরাজ্য সরকারের অতিরিক্ত ব্যয়ে অর্থায়নে সম্মত হয়েছে ব্যাংক অব ইংল্যান্ড (বিওই)। বিশ্বে এ প্রথম কোনো কেন্দ্রীয় ব্যাংক নভেল করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের প্রয়োজনে তহবিল জোগাতে এগিয়ে এসেছে। ফলে বন্ড মার্কেট থেকে অর্থ না তুলেই ব্রিটিশ সরকার কর্মসংস্থান সুরক্ষা স্কিমের মতো প্রকল্পে অর্থায়ন করতে পারবে। খবর ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস ও বিবিসি।

যুক্তরাজ্যে সাধারণত বন্ড মার্কেট বা করের মাধ্যমে সরকারিভাবে অর্থ সংগ্রহ করা হয়। কিন্তু বর্তমানে বন্ড মার্কেটের অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। নভেল করোনাভাইরাস সংকট ঘনীভূত হওয়ায় গত মার্চের মধ্যভাগে বন্ড মার্কেট চাপে পড়ে যায়। তবে এতে তহবিল সংগ্রহে সরকারকে খুব একটা চাপে পড়তে হয়নি। এরই মধ্যে বিওই ২০ কোটি পাউন্ড মূল্যের মুদ্রা ছাপিয়ে বন্ড মার্কেটে ছাড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, যেন পর্যাপ্ত অর্থ সরবরাহ নিশ্চিত ও বাজার সচল থাকে।

এ অবস্থায় সরকারিভাবে বিওইর কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহের বিষয়টি আলোচনায় এলেও তা নাকচ করে দেন ব্যাংকটির গভর্নর অ্যান্ড্রু বেইলি। তার পরও সরকারি কর্মকর্তারা কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে অর্থ জোগানকেই নিরাপদ মনে করছেন। পরে সরকারের প্রস্তাবে এ সম্মতি দেয় বিওই।

ওয়েস অ্যান্ড মিনস ফ্যাসিলিটি নামে পরিচিত ওভারড্রাফট অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে যুক্তরাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে অর্থ সংগ্রহ করে। এ অ্যাকাউন্টের সাধারণ সীমা ৩৭ কোটি পাউন্ড। এক সময় দৈনন্দিন খরচ মেটাতে এ সুবিধা ব্যবহার করত যুক্তরাজ্য সরকার। তবে ২০০৬ সালের পর তা জরুরি তহবিলে পরিণত হয়। ২০০৮ সালে অর্থের জন্য এ অ্যাকাউন্টের দ্বারস্থ হয়েছিল যুক্তরাজ্য সরকার। ওই সময় সরকার এ অ্যাকাউন্ট থেকে ২ হাজার কোটি পাউন্ড পর্যন্ত অর্থ সংগ্রহ করেছিল।

এবারও এ অ্যাকাউন্টের উত্তোলন সীমা বাড়ানোর কথা জানানো হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে ৯ এপ্রিল প্রকাশিত এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, বিওইর তহবিল জোগান হবে স্বল্পমেয়াদি। এতে অর্থের জন্য অতিরিক্ত চাপ না পড়ায় বন্ড ও অর্থবাজার উপকৃত হবে।

অর্থের জন্য যুক্তরাজ্য সরকারের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের দ্বারস্থ হওয়া বড় ঘটনা বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা। তাদের মতে, এ ঘটনা নগদের অতি চাহিদাকে ইঙ্গিত করে। তবে তারা এর ভালো-মন্দ নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019 Bankbimabd
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbankbimabd41