ঢাকা বুধবার, জুন ২৯, ২০২২
আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান হতে লাগবে ২০ বছরের অভিজ্ঞতা
  • ব্যাংকবীমাবিডি
  • ২০২২-০৬-২১ ০৭:১১:২১

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী নিয়োগসংক্রান্ত নীতিমালা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কোনো বাণিজ্যিক ব্যাংক কিংবা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী পদের অব্যবহিত পদে কমপক্ষে দুই বছরের অভিজ্ঞ বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সক্রিয় কর্মকর্তা হিসেবে ন্যূনতম ২০ বছরের অভিজ্ঞরাই প্রধান নির্বাহী হিসেবে মনোনীত হবেন। গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ এ-সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে।

নীতিমালায় বলা হয়েছে, কোনো কোম্পানির চেয়ারম্যান বা পরিচালক অথবা কর্মকর্তা থাকাকালীন নিজ পদ থেকে বরখাস্তকৃত ব্যক্তি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী হিসেবে যোগ্য বিবেচিত হবেন না। ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কোনো পরিচালক বা ওই আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ব্যবসায়িক স্বার্থ রয়েছে এমন ব্যক্তি প্রধান নির্বাহী পদে নিয়োগের জন্য যোগ্য বিবেচিত হবেন না। আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইন, ১৯৯৩-এর ১৮ (ছ) ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ নির্দেশনা জারি করা হলো, যা অবিলম্বে কার্যকর হবে।

নিয়োগের যোগ্যতা হিসেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সার্কুলারে বলা হয়, কোনো বাণিজ্যিক ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী বা অব্যবহিত পূর্ববর্তী পদে কমপক্ষে দুই বছরের অভিজ্ঞ ব্যক্তি যার ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সক্রিয় কর্মকর্তা হিসেবে ন্যূনতম ২০ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে এমন ব্যক্তি প্রধান নির্বাহী পদে নিয়োগ পেতে পারেন। এছাড়া স্থিতিপত্রের আকার ১ হাজার কোটি টাকার ঊর্ধ্বে নয় এমন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে উল্লিখিত অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তি বা রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক বা তদূর্ধ্ব পদমর্যাদার কর্মকর্তা অথবা বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট বা সমতুল্য অথবা তদূর্ধ্ব পদমর্যাদার কোনো কর্মকর্তা যার শাখা ব্যবস্থাপক হিসেবে কমপক্ষে পাঁচ বছরের অভিজ্ঞতাসহ ব্যাংকের সক্রিয় কর্মকর্তা হিসেবে কমপক্ষে ২০ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে এমন ব্যক্তিকেও প্রধান নির্বাহী পদে নিয়োগ দেয়া যাবে।

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে যোগ্য ব্যক্তিদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে বহুল প্রচারিত কমপক্ষে দুটি বাংলা ও দুটি ইংরেজি পত্রিকা এবং প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাধ্যমে একজন স্বচ্ছ ইমেজের যোগ্য ব্যক্তিকে নিয়োগের জন্য ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রধান নির্বাহী পদের জন্য প্রাপ্ত আবেদন থেকে যোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়ার লক্ষ্যে স্বচ্ছতার সঙ্গে আবেদনপত্র মূল্যায়নের জন্য প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদিত একটি মূল্যায়ন প্রক্রিয়া থাকতে হবে।

সার্কুলারে আরো বলা হয়, প্রধান নির্বাহীকে কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী হতে হবে। অর্থনীতি, ব্যাংকিং ও ফাইন্যান্স কিংবা ব্যবসায় প্রশাসন বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি থাকলে তা অতিরিক্ত যোগ্যতা হিসেবে বিবেচিত হবে।

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পর্ষদ চেয়ারম্যান বরাবর পাঠানো নির্দেশনায় বলা হয়েছে, আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সুশাসন নিশ্চিতকরণ, আমানতকারীদের স্বার্থ সুরক্ষাসহ সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বচ্ছতার সঙ্গে দক্ষ, অভিজ্ঞ ও উপযুক্ত প্রধান নির্বাহী নিযুক্তির বিষয়টি নিশ্চিতে বিদ্যমান নীতিমালা প্রতিস্থাপনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

নীতিমালা অনুযায়ী, প্রধান নির্বাহীর নিয়োগের মেয়াদ হবে অন্যূন তিন বছর। চলতি মেয়াদ শেষে প্রধান নির্বাহীকে পুনর্নিয়োগ দেয়া যাবে। পুনর্নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রধান নির্বাহী হিসেবে কর্মরত মেয়াদে প্রতিষ্ঠানটির আর্থিক কার্যক্রমের অগ্রগতি (ক্যামেলস রেটিং, বিরূপ শ্রেণীকৃত ঋণহার, মুনাফা ইত্যাদি), নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থার নির্দেশনা লঙ্ঘনের দায়ে তার ওপর আরোপিত দণ্ড (যদি থাকে) ।

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান হতে লাগবে ২০ বছরের অভিজ্ঞতা
কেন্দ্রীয় ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা
সম্পদের শ্রেণীকরণ ও সঞ্চিতি সংরক্ষণের নীতিমালা ঘোষণা