ঢাকা রবিবার, জুন ২০, ২০২১
উদ্যোগ সফল করতে ইলন মাস্কের উপদেশ
  • ব্যাংকবীমাবিডি
  • ২০২১-০৫-১৪ ১২:৫৮:৪৩

সবাইকে পেছনে ফেলে বিশ্বের শীর্ষ ধনী ব্যক্তি হিসেবে নিজের নাম লিখিয়েছেন টেসলা ও স্পেস এক্স-এর প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক। ৭ জানুয়ারি টেসলার শেয়ারের দর বৃদ্ধির পর তার সম্পদের পরিমাণ ১৮৫ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যায়। এর মাধ্যমে ২০১৭ সাল থেকে শীর্ষ ধনী ব্যক্তি জেফ বেজোসকে ছাড়িয়ে যান ইলন মাস্ক। টেসলা ওনারস অব সিলিকন ভ্যালির এক টুইট বার্তায় বলা হয়, বর্তমানে মাস্কের সম্পদের পরিমাণ ১৯০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ বলছে, গত বছর ইলন মাস্কের মোট সম্পদের পরিমাণ ১৫০ বিলিয়ন ডলার বেড়েছে। কম সময়ে এতো সম্পদ বাড়ার নজির ইতিহাসে সম্ভবত এটাই প্রথম। গত বছর টেসলার শেয়ারের দর অপ্রত্যাশিতভাবে ৭৪৩ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ে।

উদ্যোগ কাকে বলে তা যদি কারও কাছে শিখতে হয়, তবে বিশ্বের দ্বিতীয় ধনী ব্যক্তি ইলন মাস্কের কাছে শিখতে পারেন। মাস্ক শুধু অভিনব উদ্যোগ নিয়েই মানুষকে তাক লাগিয়ে দেন না, তাঁর জনসংযোগ পদ্ধতি এতই নিখুঁত যে তাঁর উদ্ভাবন যখন বৃথাও যায়, গণমাধ্যম তাঁর প্রশংসা না করে পারে না।

নতুন যাঁরা ব্যবসা করছেন, তাঁদের ইলন মাস্কের অব্যর্থ জনসংযোগের পদ্ধতি জানিয়েছে উদ্যোক্তাদের ওয়েবসাইট এন্ট্রাপ্রেনিউর ডট কম।

১. ভুল স্বীকার করুন

অন্য সব উদ্যোক্তার মতো ইলন মাস্কের কাজেও ভুল হয়। অনেক প্রকল্প বিফলেও যায়। মাস্ক কখনো সেই ভুলগুলো লুকানোর চেষ্টা করেন না। সেটা টেসলা গাড়ি স্বয়ংক্রিয় চলাচলের ভুল হোক, রকেট উড্ডয়নের আগে ফেটে যাক, ইলন মাস্ক তার দায় নিয়েছেন। এমনকি বাজার থেকে গাড়িও তুলে নিয়েছেন স্বেচ্ছায়। একবার মাস্ক ভিডিওতে তাঁর টেসলা সাইবার ট্রাকের জানালার কাচ কত শক্তিশালী, তার প্রমাণ দিচ্ছিলেন। এতে জানালাটা ভেঙে যায়, তা-ও মাস্ক স্বীকার করে নেন এবং শোধরানোর প্রতিশ্রুতি দেন।

২. স্বপ্ন হবে বিশাল

ইলন মাস্কের উদ্যোগ সব সময়ই সাধারণের চিন্তার চেয়ে বিশাল, কখনো অবিশ্বাস্যও। মাস্ক কখনো সেগুলো অর্জন করেন, কখনো পারেন না। তবে মাস্কের অবাস্তব পরিকল্পনা সব সময় তাঁর জনসংযোগে খুব সহযোগিতা করে।

৩. কাজটা সঠিকভাবে করা

শুধু স্বপ্ন দিয়ে জনসংযোগ করলে সেটা টেকানো যায় না। মাস্কের মতে, সফল হোক বা বিফল, কাজটা করে দেখাতে হবে। তাই যে পরিকল্পনা অন্যদের বলেছেন, সেটা বাস্তবায়ন করলে বিশ্বাস তৈরি করা যায়।

৪. সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তৎপর থাকা

ধনী ব্যক্তি অনেকেই আছেন, ব্যবসাসফল মানুষেরও অভাব নেই। তবে তাঁদের কারও মাস্কের মতো জনপ্রিয়তা নেই। এর কারণ হচ্ছে, মাস্ক নিয়মিত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজেকে প্রকাশ করেন। এভাবে তিনি সব সময় আলোচনায় থাকেন। মাস্কের জনসংযোগ কখনো বৃথা যায় না।

৫. নিজের স্বপ্নের কথা মন খুলে বলুন

নিজের কাজ, স্বপ্ন, পরিকল্পনা ইত্যাদি সবার সামনে বলা নিয়ে অনেক রকম দ্বিধায় আমরা ভুগি। হ্যাঁ, অনেক সময় নিরাপত্তার স্বার্থেই গোপন রাখতে হয়। তবে মাস্ক খুব সুন্দরভাবে নিজের পরিকল্পনা প্রকাশ করেন। পরিকল্পনামতো খুব নিখুঁতভাবে নিজের কাজ সম্পাদন করেন। এভাবেই মাস্ক একটি দারুণ জনসংযোগ করেন।

ইসরায়েলে বাংলাদেশিদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বহালই থাকছে
এক মিনিট দেরিতে এলো ট্রেন, ক্ষমা চাইলো কর্তৃপক্ষ
দীর্ঘ কর্মঘন্টায় বছরে মারা যান ৭,৪৫,০০০ মানুষ- বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা