ঢাকা বুধবার, জুন ২৯, ২০২২
নতুন গভর্নর যে কারণে একটু দেরিতে যোগদান করছেন
  • ব্যাংকবীমাবিডি
  • ২০২২-০৬-২১ ২১:৪৬:৫৫

নিয়োগ পাওয়া নতুন গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার ঈদুল আজহার পর আগামী ১২ জুলাই বাংলাদেশ ব্যাংকে যোগ দেবেন। ঈদ হতে পারে আগামী ৯ জুলাই শনিবার বা ১০ জুলাই রোববার। অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

বর্তমান গভর্নর ফজলে কবিরের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ৩ জুলাই রোববার। ওই দিনই তাঁকে বিদায় সংবর্ধনা দেবে বাংলাদেশ ব্যাংক অফিসার্স ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল।

সে ক্ষেত্রে কয়েক দিনের জন্য ভারপ্রাপ্ত গভর্নরের দায়িত্ব পালন করতে হবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামালকে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, আহমেদ জামাল যাতে নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে ভারপ্রাপ্ত গভর্নরের রুটিন দায়িত্ব পালন করতে পারেন, সে জন্য আদেশ জারি করা হবে।

বর্তমান গভর্নরের মেয়াদ ৩ জুলাই শেষ হলে ৪ জুলাই দায়িত্ব নিতে নতুন গভর্নরের সমস্যা কী, এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তাঁর চাকরি আছে ২০২৩ সালের আগস্ট পর্যন্ত। গভর্নর হবেন বলে তাঁকে সরকারি চাকরি থেকে স্বেচ্ছা অবসর নিতে হচ্ছে। আগামী ১১ জুলাই থেকে তাঁর স্বেচ্ছা অবসরে আবেদন রাষ্ট্রপতির কার্যালয় থেকে গত রোববার অনুমোদিত হয়েছে।

সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮-এর দ্বাদশ অধ্যায়ে ‘অবসর, ইস্তফা ইত্যাদি’ বিষয়ে বিবরণ দেওয়া আছে। এতে উল্লেখ আছে, সরকারি চাকরির মেয়াদ ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ার পর যেকোনো সময় একজন সরকারি কর্মচারী অবসর নিতে পারেন। অবসর গ্রহণের ৩০ দিন আগে ওই কর্মচারীকে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের কাছে চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার ইচ্ছা লিখিতভাবে জানাতে হবে। আরও উল্লেখ আছে, এই ইচ্ছা চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে এবং তা সংশোধন বা প্রত্যাহার করা যাবে না।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ থাকলেও আগামী ৪ জুলাই গভর্নর পদে যোগ দিতে গেলে আব্দুর রউফ তালুকদারকে আইন লঙ্ঘন করতে হবে এবং পেনশন পাওয়ার ক্ষেত্রেও তাঁর সুবিধা কমবে।

সাধারণত তিন থেকে চার দিন বা বড়জোর এক সপ্তাহ সময় হাতে নিয়ে বড় ধরনের পদে নিয়োগ দিয়ে থাকে সরকার। কিন্তু আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ আব্দুর রউফ তালুকদারকে চার বছরের জন্য নিয়োগ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে তিন সপ্তাহ আগে। সেদিন ছিল ১১ জুন, অর্থাৎ সরকারি ছুটির দিন শনিবার।

আব্দুর রউফ তালুকদার গভর্নর হয়ে চলে যাবেন বলে শূন্য হবে অর্থসচিবের পদ। নতুন অর্থসচিব হিসেবে এ পদে আগেভাগেই নিয়োগ দেওয়া হয় অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব ফাতিমা ইয়াসমিনকে। এ প্রজ্ঞাপন জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। প্রজ্ঞাপন জারি হয় ১৬ জুন। আর ফাতিমা ইয়াসমিনকে যোগ দিতে বলা হয়েছে ১১ জুলাই।

ফাতিমা ইয়াসমিন যেহেতু নিয়মিত সরকারি কর্মচারী এবং ইআরডি সচিব থেকে বদলি হয়ে অর্থসচিব হচ্ছেন, সে ক্ষেত্রে তাঁর এক মাস আগে অবসরে যাওয়ার বিষয় নেই।

একইভাবে ১৬ জুন নতুন ইআরডি সচিব হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য শরিফা খান। তাঁকেও যোগ দিতে বলা হয়েছে আগামী ১১ জুলাই। তাঁরও অবসরে যাওয়ার বিষয় নেই। দুজনের ক্ষেত্রেই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয় তাঁদের যোগ দেওয়ার অন্তত ২৫ দিন আগে।

আগামী ১০ জুলাই ঈদ হলে তার পর এক দিন বাদ দিয়ে প্রথম অফিস খুলবে ১২ জুলাই। সে ক্ষেত্রে এ দুই সচিবও নতুন গভর্নরের মতোই যাঁর যাঁর পদে যোগ দেবেন একই দিনে, অর্থাৎ ১২ জুলাই। অবশ্য অর্থসচিব আব্দুর রউফ তালুকদার গভর্নর হিসেবে ১২ জুলাই যোগ দিলে অর্থসচিব পদে ফাতিমা ইয়াসমিনের তার আগের দিন ১১ জুলাই যোগ দেওয়ার সুযোগও নেই। আর তিনি না গেলে ইআরডি সচিব পদে যোগ দেওয়ার সুযোগ নেই শরিফা খানেরও।

জালিয়াতি: স্থায়ী বরখাস্ত হচ্ছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ২ কর্মকর্তা
নতুন গভর্নর যে কারণে একটু দেরিতে যোগদান করছেন
ব্যাংকগুলোতে ডলার সংকট তীব্র হচ্ছে