ঢাকা শনিবার, মে ২৮, ২০২২
বেতন কাঠামো বাস্তবায়নে সময় চায় ব্যাংকগুলো
  • ব্যাংকবীমাবিডি
  • ২০২২-০১-২৬ ২২:০১:২৬

দেশের বেসরকারি ব্যাংকগুলোর কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য কেন্দ্রীয় যে বেতন-ভাতা নির্ধারণ করে দিয়েছে তা বাস্তবায়নে সময় চায় ব্যাংকগুলো। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনায় বেতন-ভাতার কাঠামো নির্ধারণ করে দিয়ে তা মার্চ থেকে বাস্তবায়ন করার কথা বলা হয়েছে।

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সঙ্গে বৈঠক শেষে বিএবি ও এক্সিম ব্যাংকের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। তিনি আশা করেন, তাদের এ দাবি মেনে সময় বাড়ানো হবে। ব্যাংক নির্বাহীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) নেতারাও বৈঠকে অংশ নেন।

গভর্নরের সঙ্গে বৈঠক শেষে নজরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, বেতন-ভাতা নির্ধারণ করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী, আগামী মার্চ মাস থেকে সিদ্ধান্ত মানা ব্যাংকের জন্য কঠিন। এতে ব্যাংকারদের আর্থসামাজিক অবস্থা, ব্যাংকের ভারসাম্য সব বিষয় বিবেচনা করে সময় নিয়ে তা বাস্তবায়ন করতে চাই। বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছেও আমরা এ আবেদন জানিয়েছি। ব্যাংক কর্মকর্তাদের জন্য চমৎকার একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে, এখনই এ সিদ্ধান্ত মানা হলে ব্যাংকের অন্যান্য কর্মকর্তাদের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হতে পারে।

বৈঠকের বিষয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, নির্দেশনা কার্যকরে বাড়তি সময়ের চেয়েছে ব্যাংকের উদ্যোক্তা পরিচালকরা। তাদের দাবি ভেবে দেখবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তাছাড়া সার্কুলারের বিষয়ে যেসব অস্পষ্টতা ছিল উভয় পক্ষের আলোচনায় তা পরিষ্কার করা হয়েছে।

গত বৃহস্প‌তিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ একটি নি‌র্দেশনা জা‌রি ক‌রে‌ দেশের বেসরকারি ব্যাংকের কর্মীদের চাকরির শুরুর বেতন ভাতার কাঠামো নির্ধারণ করে দেয়। তাতে অ্যাসিস্ট্যান্ট অফিসার বা ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট অফিসার বা ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট ক্যাশ অফিসার অথবা সমপর্যায়ের কর্মকর্তা তা যে নামেই অভিহিত হোক না কেন, ব্যাংকের এন্ট্রি লেভেলে নিযুক্ত কর্মকর্তাদের শিক্ষানবিশকালে ন্যূনতম বেতন হবে ২৮ হাজার টাকা।

শিক্ষানবিশকাল শেষে এ ধরনের ব্যাংক কর্মকর্তাদের শুরুর মূল বেতনসহ ন্যূনতম বেতন-ভাতা হবে ৩৯ হাজার টাকা। একই সঙ্গে কর্মচারীদের বেতন ২৪ হাজার টাকার নির্ধারণ করে দেয়। এছাড়া নির্ধা‌রিত লক্ষ্য অর্জন করতে না পারলে বা অদক্ষতার অজুহাতে কোন ব্যাংকারকে চাকরি থেকে বাদ দেওয়া যাবে না বলে গত ২৫ জানুয়ারি আরও একটি নির্দেশনা জারি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এরপরই বুধবার এবিবি ও বিএবি প্রতিনিধিদল গভর্নরের সঙ্গে বৈঠক করে নির্দেশনা বাস্তবায়নে সময় চেয়েছে।

নোট বাতিল হওয়ার বিজ্ঞপ্তি গুজব: বাংলাদেশ ব্যাংক
সব ব্যাংকে একই দরে ডলার বেচাকেনার সিদ্ধান্ত
অনিয়ম ও জালিয়াতির মাধ্যমে নেয়া ঋণে সুদ মওকুফ নয়