ঢাকা রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১
দেশের সবচেয়ে বড় সৌর বিদ্যুৎকেন্দ্র হবে মাদারগঞ্জে
  • ব্যাংকবীমাবিডি
  • ২০২১-০৮-১০ ০৯:১৭:৩১

নবায়নযোগ্য (সৌর) শক্তির উৎস থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে জামালপুরের মাদারগঞ্জে ১০০ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করা হবে।

মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এনইসি সম্মেলন কক্ষের সঙ্গে যুক্ত হয়ে সভায় সভাপতিত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। একনেক কার্যপত্র থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, একনেক সভায় ‘শেখ হাসিনা সোলার পার্ক, জামালপুরের এ মাদারগঞ্জ ১০০ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ’ শীর্ষক প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে। প্রকল্পটি  বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে পরিকল্পনা কমিশনে প্রস্তাব করা হয়। অনুমোদন পেলে প্রকল্পটি চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর ২০২৩ সালে বাস্তবায়ন করবে রুরাল পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড (আরপিসিএল)।  ২০২৩ সালের মধ্যে এ সোলার পার্ক তৈরি করবে সংস্থাটি।

প্রকল্পটির জন্য মোট ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৫১১ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ৩১৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা, ঋণ থেকে ১ হাজার ১১৬ কোটি টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ৭৭ কোটি টাকা ব্যয় করা হবে।

প্রকল্পের প্রধান কার্যক্রম হচ্ছে- মাদারগঞ্জ ১০০ মে.ওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ইঞ্জিনিয়ারিং, প্রকিউরমেন্ট এবং কনস্ট্রাকশন (ইপিসি) কাজ সম্পাদন, ১০০ মে.ওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য ৩২৫.৬৫৩৬ একর ভূমি উন্নয়ন, ১৩২ কেভি ৪৭ কিমি. (প্রস্তাবিত বিদ্যুৎ কেন্দ্র হতে ঘাটাইল গ্রিড উপকেন্দ্র পর্যন্ত) পাওয়ার ইভাক্যুয়েশন লাইন এবং ইভাক্যুয়েশন অবকাঠামো নির্মাণ, ১০০ মে. ওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের অফিস বিল্ডিং, ওয়ার্কশপ, ওয়্যারহাউজ এবং আনসার ব্যারাক নির্মাণ, ৮৮টি ভূমিহীন পরিবারকে পুনর্বাসনের জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ এবং ৩২৫.৬৫৩৬ একর ভূমি দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্ত গ্রহণ।

অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় ২০২৫ সাল নাগাদ মোট বিদ্যুৎ ব্যবহারের ১০ শতাংশ নবায়নযোগ্য জ্বালানির মাধ্যমে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্দিষ্ট করা হয়েছে। টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (স্রেডা) সূত্র মতে, বর্তমানে মোট বিদ্যুৎ উৎপাদনের ৩.২৪ শতাংশ বিদ্যুৎ নবায়নযোগ্য জ্বালানির মাধ্যমে উৎপাদন করা হয়। প্রকল্পের মাধ্যমে ১০০ মে.ও. সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বিধায় প্রকল্পটি অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ।

এ প্রসঙ্গে পরিকল্পনা কমিশনের শিল্প ও শক্তি বিভাগ সদস্য (সচিব) শরিফা খান বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে বিদ্যুৎ উৎপাদনে বহুমূখীকরণের পাশাপাশি কার্বন নিঃসরণ কমবে। এছাড়া নবায়নযোগ্য জ্বালানির বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে বিধায় একনেকে অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে।

২০১৭ সাল থেকে দেশে এখন পর্যন্ত সাতটি সোলার পার্ক নির্মাণ করা হয়েছে। এসব কেন্দ্রের মোট উৎপাদন সক্ষমতা ১৩০ মেগাওয়াট। স্থাপিত সোলার পার্কগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় সৌর বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে ময়মনসিংহের গৌরীপুরে। এ বিদ্যুৎকেন্দ্রের মোট উৎপাদনক্ষমতা ৫০ মেগাওয়াট।

বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৮ শতাংশ-এডিবি
অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে টিফা চুক্তি সই করল বাংলাদেশ
দেশের সবচেয়ে বড় সৌর বিদ্যুৎকেন্দ্র হবে মাদারগঞ্জে