ঢাকা বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ২, ২০২১
৫ ব্যাংকের প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ
  • ব্যাংকবীমাবিডি
  • ২০২১-১১-০৭ ২২:০১:৪৭

বাংলাদেশ ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির আওতায় পাঁচ ব্যাংকের অফিসার (ক্যাশ) নিয়োগের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ তুলে মানববন্ধন করেছেন চাকরিপ্রত্যাশীরা। এসময় তারা বিক্ষোভ করেন। বিক্ষোভ শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকে একটি স্মারকলিপিও দেন পরীক্ষার্থীরা। সেসাথে এই পরীক্ষা বাতিল করে পুনরায় পরীক্ষা নেওয়ার দাবি জানান তারা।

রোববার (৭ নভেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে রাজধানীর শাপলা চত্বর সংলগ্ন স্থানে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে প্রায় অর্ধশতাধিক চাকরিপ্রত্যাশী অংশ নেন।

জানা গছে, শনিবার (৬ নভেম্বর) বিকেল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত পাঁচ ব্যাংকের অফিসার (ক্যাশ) নিয়োগের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মোট ১ হাজার ৫১১টি পদের বিপরীতে অনুষ্ঠিত এ পরীক্ষায় অংশ নেন ১ লাখ ১৬ হাজার ৪২৭ জন চাকরিপ্রত্যাশী।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া আকরাম খা নামে একজন চাকরিপ্রত্যাশী দাবি করে বলেন, পরীক্ষা শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ১০০টি প্রশ্নের প্রিন্ট করা উত্তরপত্র (বাংলা-ইংরেজি-সাধারণ জ্ঞান) ফেসবুকে পাওয়া গেছে। প্রশ্ন আগেই ফাঁস হয়েছে। এটা না হলে পরীক্ষা ৪টার সময় শেষ হওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই ১০০টি প্রশ্নের সঠিক উত্তর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পাওয়া সম্ভব নয়।

আন্দোলনকারীদের দাবি, অবিলম্বে এই নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল করে তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে। একইসঙ্গে পরীক্ষার দায়িত্ব পাওয়া আহসান উল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্টদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

স্মারকলি‌পিতে পরীক্ষার্থীরা বলেন, ৬ নভেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠিত পাঁচ ব্যাংকের সম্মিলিত পরীক্ষা অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে হয়েছে। পরীক্ষার প্রশ্নের উত্তর পরীক্ষা শুরুর আগেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পাওয়া যায়।

স্মারকলি‌পিতে পরীক্ষার্থীরা আরও অভিযোগ করেন, বিভিন্ন কেন্দ্রে পরীক্ষার সময় শেষ হওয়ার পরেও পরীক্ষা দিতে দেয়া হয়েছে। পরীক্ষায় পর্যবেক্ষক কম ছিল। কেন্দ্রে কেন্দ্রে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র পৌঁছাতে দেরি হয়েছে। এ ছাড়া নানা অব্যবস্থাপনা ও চরম অনিয়ম ছিল বলে স্মারকলিপিতে উল্লেখ করেন পরীক্ষার্থীরা। ওই পরীক্ষা বাতিলসহ দ্রুত নতুন করে পরীক্ষা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

পরীক্ষায় অংশ নেওয়া একজন বলেন, ‘আহসান উল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কিভাবে প্রত্যেকবার টেন্ডার পায় জানি না। প্রতিবারই কোনো না কোনো ঝামেলা করে এই বিশ্ববিদ্যালয়। গত শনিবার (৬ নভেম্বর) অফিসার ক্যাশ) পদে সমন্বিত ব্যাংকের পরীক্ষায় সব প্রশ্নের উত্তর সরবরাহ করা হয়। এর আগেও হল থেকে ফোন পাওয়া গিয়েছিল।’

শনিবার বেলা ৩টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ১ হাজার ৫১১টি পদের বিপরীতে অনুষ্ঠিত এ পরীক্ষায় অংশ নেন ১ লাখ ১৬ হাজার ৪২৭ জন চাকরিপ্রত্যাশী। একাধিক চাকরিপ্রার্থীর দাবি, পরীক্ষা চলাকালীন প্রশ্নের প্রিন্ট করা উত্তরপত্র ফেসবুকে পাওয়া যায়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘এ ব্যাপারে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে। তদন্ত কমিটি গঠন হতে পারে।’

ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্য ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক হুমায়ুন কবির বলেন, ‘প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগের বিষয়টি আমরাও শুনেছি। ৪৬টি কেন্দ্রে পরীক্ষা হয়েছে। যদি প্রশ্নপত্র ফাঁসের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায় বা সংশ্লিষ্ট কেউ যদি জড়িত থাকে, তাহলে আমরা ব্যবস্থা নেব।’

ট্রাস্ট ব্যাংকে এমটিও পদে চাকরির সুযোগ
ব্যাংকের চাকরিপ্রার্থীদের বয়সেও ২১ মাস ছাড়
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষাতেও জালিয়াতি
সর্বশেষ সংবাদ