ঢাকা রবিবার, এপ্রিল ১১, ২০২১
অফিসে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন সিঙ্গাপুরের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা
  • ব্যাংকবীমাবিডি
  • ২০২১-০৩-২৮ ১৩:২৯:৩৫

মহামারীর কারণে দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকার পর খোলার প্রস্তুতি নিচ্ছে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার বড় অর্থনৈতিক ক্ষেত্র সিঙ্গাপুরের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে এজন্য বেশকিছু প্রস্তুতি নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। যেমন লেনদেনের জায়গাগুলোয় মানুষের প্রবেশাধিকার নিয়ন্ত্রণ করা, আঙুলের ছাপের বদলে ফেসিয়াল রিকগনিশন যন্ত্রের ব্যবহার এবং কাজের জায়গার মাঝে যথেষ্ট দূরত্ব বজায় রাখা। খবর ব্লুমবার্গ।

সিটি ব্যাংকিং অ্যাসোসিয়েশন এবং দ্য মনিটারি অথরিটি অব সিঙ্গাপুরের যৌথ উদ্যোগে চালানো এক সমীক্ষা প্রতিবেদনে এ বিষয়ে বিভিন্ন সুপারিশ উঠে এসেছে। সেখানে বলা হয়েছে, সিঙ্গাপুরের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর উচিত আরো বেশি স্পর্শবিহীন প্রযুক্তি ব্যবহার করা। একজন কর্মীর কাজের জন্য আগের চেয়ে বেশি জায়গার ব্যবস্থা করা, লেনদেনের জায়গাগুলোয় নিরাপদ দূরত্ব নিশ্চিত করা।

প্রতিষ্ঠানগুলোকে হট ডেস্কিং ব্যবস্থা প্রবর্তন করতেও পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এছাড়া মোশন ডিটেক্টর মেশিন, শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপের ব্যবস্থা এবং মুখে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে অফিসগুলোর বায়ু চলাচল ব্যবস্থা যেন ভালো থাকে, সেদিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে। এছাড়া সব কর্মীকে সদর দপ্তরে না এনে স্যাটেলাইট অফিস বা শাখা অফিস থেকে কাজ করার সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে। সমীক্ষায় বলা হয়েছে, এমনভাবে পদক্ষেপ নিতে হবে যেন কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা থাকে আবার ব্যবসার ক্ষতি না হয়।

মহামারীর শুরু থেকেই ঘরে বসে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছিলেন সিঙ্গাপুরের দুই শতাধিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মী। নিরাপদে ঘরে বসে কাজ করার অভ্যাস থেকে কোন প্রক্রিয়ায় তাদের আবার অফিসে ফিরিয়ে আনা যেতে পারে, সেটি নিয়েও ভাবছে প্রতিষ্ঠানগুলো।

মনিটারি অথরিটি অব সিঙ্গাপুরের (এমএএস) ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর অং চং টি এক বিবৃতিতে বলেছেন, আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর উচিত কর্মক্ষেত্রে সুরক্ষা আর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে যেসব সুপারিশ করা হয়েছে সেগুলো বিবেচনা করা। এগুলো পালন করতে পারলে ভবিষ্যতেও যেকোনো পরিস্থিতির বিষয়ে প্রস্তুত থাকা যাবে।

বিশ্বজুড়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো কীভাবে করোনা-পরবর্তী পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেয়, সেটি এখন দেখার বিষয়। এরই মধ্যে কিছু ব্যাংক জানিয়েছে, তারা কাজের কিছু নিয়ম শিথিল করবে।

অফিসে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন সিঙ্গাপুরের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা
ভারতে ছোট শিল্প ও ব্যাংকের দ্বন্দ্ব
২০২০ সনে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডের আয় কমেছে ৩%